রাজনীতি

খালেদা জিয়াকে দেওয়া লাগছে রক্ত

চিকিৎসাধীন বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার অবস্থার কোনো পরিবর্তন হয়নি। বুধবার (২৪ নভেম্বর) তার রক্তপাত অনুসন্ধান করার জন্য সিসিইউ থেকে নিয়ে এসে কোলনোস্কোপি করা হয়েছে। এদিন রাতে শারীরিক কিছু পরীক্ষা-নিরীক্ষা করা জন্য সিসিইউ থেকে বের করা হয় খালেদা জিয়াকে। এ সময় উপস্থিত ছিলেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। সেই সঙ্গে প্রয়াত ছোট ছেলে আরাফাত রহমান কোকোর স্ত্রী সৈয়দা শর্মিলা রহমান সিঁথি তার পাশে ছিলেন।

হাসপাতাল সূত্রে জানা গেছে, গতকাল রাতে ৬ ব্যাগের উপরে খালেদা জিয়ার রক্ত দেওয়া লেগেছে। তার হিমোগ্লোবিন লেভেল নেমে গিয়েছিল, বুধবার রাতে সর্বশেষ ৮.৫ ছিল।
 
তার আগে মঙ্গলবার (২৩ নভেম্বর) খালেদা জিয়ার রক্ত বমি হয়েছিল। তাই জরুরি চিকিৎসার জন্য বুধবার মেডিকেল বোর্ড মিটিংয়ে বসে। আর ডায়াবেটিস এখনো অনিয়ন্ত্রিত আছে। সেই সঙ্গে উচ্চ রক্তচাপ থাকায় পেশার এখনো ওঠানামা করছে। খালেদা জিয়ার ইউরিন ইনফেশনটা এখনো রয়েছে। পাশাপাশি লিভারের যে সমস্যা রয়েছে তাও ক্রমেই বাড়ছে। সংশ্লিষ্ট চিকিৎসক এ বিষয়ে কথা না বললেও বিভিন্ন সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।
 
এদিকে খালেদা জিয়াকে বিদেশে চিকিৎসার দাবিতে বৃহস্পতিবার (২৫ নভেম্বর) থেকে ৪ ডিসেম্বর পর্যন্ত বিএনপি ও অঙ্গ সহযোগী সংগঠনের বিভিন্ন কর্মসূচির ঘোষণা করেছেন দলের মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।
 
কর্মসূচির মধ্যে রয়েছে ঢাকাসহ সারা দেশে যুবদলের বিক্ষোভ ও আগামীকাল শুক্রবার (২৬ নভেম্বর) বাদ জুমা রোগমুক্তির জন্য দোয়া অনুষ্ঠান। এরপর ২৮ নভেম্বর সারা দেশে স্বেচ্ছাসেবক দলের বিক্ষোভ (ঢাকায় হবে জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে), ৩০ নভেম্বর বিভাগীয় সদরে বিএনপির সমাবেশ।
 
আগামী ১ ডিসেম্বর সারা দেশে ছাত্রদলের সমাবেশ, ২ ডিসেম্বর জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে মুক্তিযোদ্ধা দলের মানববন্ধন, ৩ ডিসেম্বর ঢাকাসহ সারা দেশে কৃষক দলের সমাবেশ এবং ৪ ডিসেম্বর মহিলা দলের মৌন মিছিল।

মতামত দিন