খেলাধুলা

তাইজুলের ঘূর্ণিতে লিডে বাংলাদেশ

প্রথম টেস্টে তাইজুলের ঘূর্ণিতেই সব উইকেট হারিয়ে ২৮৬ রানে গুটিয়ে গেছে পাকিস্তানের প্রথম ইনিংস। দলের হয়ে সেঞ্চুরি করেন আবিদ আলি। ফলে ৪৪ রানের লিড নিয়েছে টাইগাররা।

বাংলাদেশের বিপক্ষে প্রথম টেস্টের দ্বিতীয় দিন ভালোভাবে কাটালেও তৃতীয় দিনে ব্যাটিং বিপর্যয়ে পড়েছে সফরকারী পাকিস্তান। তৃতীয় দিনের শুরুতে পাকিস্তান শিবিরে তাইজুল জোড়া আঘাত হানেন। আবদুল্লাহ শফিক ও আজহার আলিকে শিকারে পরিণত করেন তাইজুল ইসলাম। দুজনেই তাইজুলের এলবডব্লিউর ফাঁদে পা দেন। এরপর বাবর আজমকে বোল্ড আউট করেন মেহেদী হাসান মিরাজ। ফেরার আগে পাকিস্তান দলপতি করেন মাত্র ১০ রান। তাইজুল শিকার করেছেন ফাওয়াদ আলমের উইকেটও।
 
এবার স্কোর বোর্ডে ৫ রান তুলে ইবাদতের এলবিডব্লিউর শিকার হন মোহাম্মদ রিজওয়ান। ১৩৩ রান করা আবিদ আলিকে লেগ বিফোরের ফাঁদে ফেলেন তাইজুল। নিজের পরের ওভারেই হাসান আলিকে বোকা বানান এই স্পিনার। ১২ রান করা হাসান স্ট্যাম্পিংয়ের শিকার হন। ব্যক্তিগত ৫ রান করা সাজিদ খানকে বোল্ড করেন ইবাদত।

বাংলাদেশি বোলারদের পাত্তা না দিয়েই প্রথম টেস্টের দ্বিতীয় দিন শেষ করেছিল পাকিস্তান। বাংলাদেশের প্রথম ইনিংসের ৩৩০ রানের জবাবে বিনা উইকেটে ১৪৫ রান করে বাবর আজম বাহিনী। অন্যদিকে প্রথম দিন ব্যাটিংয়ে দাপট দেখানো বাংলাদেশের ইনিংস গুটিয়ে যায় দ্বিতীয় দিনের শুরুতেই। ৪ উইকেটে ২৫৩ রান নিয়ে খেলতে নামা বাংলাদেশ গুটিয়ে যায় ৩৩০ রানে। পাকিস্তানের হয়ে ৫ উইকেট নেন হাসান আলি।
আরও পড়ুন: সাংবাদিকের প্রশ্নে ক্ষেপলেন লিটন
 
প্রথম দিনে শতক করেছিলেন লিটন দাস, ৮২ রানে অপরাজিত ছিলেন মুশফিক। সবার আশা ছিল দ্বিতীয় দিনে নিজের শতক পূর্ণ করবেন মুশি। তবে সেটি আর হয়নি। নার্ভাস নাইনটিতে আউট হন তিনি। ফাহিম আশরাফের বলে উইকেটরক্ষকের কাছে ক্যাচ তুলে দেন মুশফিক। মুশফিক আউট হয়েছেন ৯১ রানে। মেহেদী হাসান মিরাজ ছিলেন ৩৮ রানে অপরাজিত। মেহেদী বাদে কেউ ক্রিজে বেশিক্ষণ টিকতে পারেনি, যার ফলে ৩৩০ রানেই গুটিয়ে যায় টাইগারদের ইনিংস।
 
এর আগে দ্বিতীয় দিনের দ্বিতীয় ওভারেই প্রথম দিনের শতক করা লিটন দাসকে হারায় বাংলাদেশ। লিটন-মুশফিকের ২০৪ রানের জুটি ভাঙেন হাসান আলি। লিটনকে এলবিডব্লিউ করেন তিনি। এরপর ব্যাটিংয়ে নেমে ৪ রানে সাজঘরে ফেরেন টেস্টে অভিষেক হওয়া ইয়াসির আলি। হাসান ছাড়াও পাকিস্তানের হয়ে দুটি করে উইকেট পান শাহিন শাহ আফ্রিদি ও ফাহিম আশরাফ। সাজিদ খান নেন এক উইকেট।

মতামত দিন