খেলাধুলা

সাকিবকে নিয়ে আগ্রহ দেখালো না কেউ

আইপিএলের নিলামে নাম উঠেছিল বাংলাদেশি অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসানের। তবে দুপুর আড়াইটা পর্যন্ত কেউ তাকে নেওয়ার জন্য বিড করেনি। শনিবার (১২ ফেব্রুয়ারি) বাংলাদেশ সময় দুপুর সাড়ে ১২টায় শুরু হয় ২০২২ আসরের মেগা নিলাম। বেঙ্গালুরুতে অনুষ্ঠিত হচ্ছে জমকালো এ অনুষ্ঠান। সাকিবের মতো অবিক্রিত রয়েছেন অস্ট্রেলিয়ার স্টিভ স্মিথ, ভারতের সুরেশ রাইনা ও দক্ষিণ আফ্রিকার ডেভিড মিলার।

শুরুতেই টুর্নামেন্টের স্পন্সর প্রতিষ্ঠানের নাম পরিবর্তনের ঘোষণা দেন চেয়ারম্যান ব্রিজেশ পাটেল। ভিভো থেকে পরিবর্তিত হয়ে আইপিএলের নতুন স্পন্সর এখন টাটা গ্রুপ।

প্রথম নিলামে ওঠে শিখর ধাওয়ানের নাম। গত মৌসুমে দিল্লি ক্যাপিটালসের হয়ে খেলেছিলেন তিনি। এবার তাকে আর ধরে রাখেনি তারা। তাকে এ আসরে ৮ কোটি ২৫ লাখ রুপিতে কিনেছে পাঞ্জাব কিংস। তার ভিত্তিমূল্য ছিল ২ কোটি রুপি। নিলামের দ্বিতীয় বিক্রীত নাম রবিচন্দ্রন অশ্বিন। তারও ভিত্তিমূল্য ছিল ২ কোটি রুপি। এবার ৫ কোটি রুপিতে তিনি গেছেন রাজস্থান রয়্যালসে।

দুই বছর আগের অর্থাৎ ২০২০ সালের সবচেয়ে দামি খেলোয়াড় ছিলেন প্যাট কামিন্স। তাকে সাড়ে ১৫ কোটিতে কিনেছিল কলকাতা নাইট রাইডার্স। এই আসরেও তাকে নিয়েছে কলকাতার ক্লাবটি, তবে এবার তার পেছনে তাদের খরচ হয়েছে মাত্র ৭ কোটি ২৫ লাখ রুপিতে।

আইপিএলের গত আসরে কাগিসো রাবাদা খেলেছিলেন দিল্লি ক্যাপিটালসে। আর ট্রেন্ট বোল্ট খেলেছিলেন মুম্বাই ইন্ডিয়ান্সের হয়ে। এ দুজনকেই ধরে রাখা হয়নি। এবারের নিলামে নতুন দলও পেয়ে গেলেন তারা। রাবাদে গেলেন পাঞ্জাব কিংসে ও বোল্ট রাজস্থান রয়্যালসে। এদের মধ্যে রাবাদার দাম ৯ কোটি ২৫ লাখ রুপি ও বোল্টের দাম ৮ কোটি রুপি।

আইপিএলের এবারের আসরে নতুন দুই দল লখনৌ সুপার জায়ান্ট ও গুজরাট টাইটানস। এদের মধ্যে এবারের নিলামে প্রথম প্লেয়ার কিনেছে গুজরাট। ৬ কোটি ২৫ লাখ রুপিতে তারা দলে নিয়েছে মোহাম্মদ শামিকে। শামির আগে শ্রেয়াস আয়ারকে দলে নিয়েছে কলকাতা নাইট রাইডার্স। ২ কোটি রুপির ভিত্তিমূল্য থাকা এ খেলোয়াড়ের দাম ১২ কোটি ২৫ লাখ রুপি।

আগের আসরে নামের প্রতি মোটেই সুবিচার করতে পারেননি অস্ট্রেলিয়ার ডেভিড ওয়ার্নার। তাকে ধরে রাখেনি সানরাইজার্স হায়দরাবাদ। এবার নতুন দলে গেলেন তিনি। ৬ কোটি ২৫ লাখ রুপিতে তানে দলে ভিড়িয়েছে দিল্লি। এর চেয়ে ৫০ লাখ রুপি বেশি দামে কুইন্টন ডি কককে নিলাম থেকে কিনেছে লখনৌ।

আইপিএলের গত আসরে চেন্নাই সুপার কিংসের হয়ে ব্যাটে রানের ফোয়ারা দেখিয়েছিলেন দক্ষিণ আফ্রিকার ফাফ ডু প্লেসি। ১৬ ম্যাচে ৬৩৩ রান নিয়ে তিনি হয়েছিলেন টুর্নামেন্টের দ্বিতীয় সর্বোচ্চ রান সংগ্রাহক। সেই প্লেসিকে কিনেছে রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স বেঙ্গালুরু। তার দাম ৭ কোটি রুপি। হার্ডহিটার শিমরন হ্যাটমায়ারের দাম ৮ কোটি ৫০ লাখ রুপি, তার দল রাজস্থান রয়্যালস। ২ কোটি ভিত্তিমূল্যের রবিন উত্থাপা সেই দামেই গিয়েছেন চেন্নাই সুপার কিংসে। রাজস্থান আরও কিনেছে দেবদূত পাডিকালকে। তার দাম ৭ কোটি ৭৫ লাখ রুপি।

ইংল্যান্ডের জেসন রয় ২ কোটিতে পেলেন গুজরাটকে। ডোয়াইন ব্রাভো গেলেন তার পুরনো দলেই। চেন্নাই তাকে কিনেছে ৪ কোটি ৪০ লাখ রুপিতে। নিতিশ রানা ৮ কোটিতে বিক্রি হয়েছেন আগের ক্লাব কলকাতা নাইট রাইডার্সে। ৮ কোটি ৭৫ লাখ রুপিতে জেসন হোল্ডারকে নিয়েছে লখনৌ। ৫ লাখ ৭৫ কোটি রুপি দাম দিয়ে দিপক হোডাকে কিনেছে লখনৌ। গত মৌসুমের হ্যাটট্রিক ম্যান হার্শাল প্যাটেল ১০ লাখ ৭৫ কোটিতে রুপিতে গেছেন রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্সে।

মতামত দিন