অর্থনীতি

ডলারের দাম আরেক দফা বাড়ল, প্রতি ডলার কাল থেকে ৮৯ টাকা

ডলারের দাম বাড়াতে ব্যাংকগুলোর প্রস্তাব আংশিক মেনে নিয়েছে বাংলাদেশ ব্যাংক। ব্যাংকগুলো আজ দুপুরে প্রস্তাব দিয়েছিল আন্তব্যাংক লেনদেনে প্রতি ডলারের বিনিময় মূল্য ৮৯ টাকা ৮০ পয়সা নির্ধারণের। বর্তমানে আন্তব্যাংক লেনদেনে ডলারের দাম ৮৭ টাকা ৯০ পয়সা। ব্যাংকগুলোর প্রস্তাবের পর আজ সন্ধ্যায় কেন্দ্রীয় ব্যাংকের গভর্নর ফজলে কবির প্রতি ডলারের দাম ৮৯ টাকা নির্ধারণের সিদ্ধান্ত জানান।

বাংলাদেশ ব্যাংক জানিয়েছে, ডলারের নতুন এ দাম আগামীকাল সোমবার থেকে কার্যকর হবে। কাল থেকে ব্যাংকগুলোর কাছে এ দামে ডলার বিক্রি করবে বাংলাদেশ ব্যাংক।

ডলারের সংকট কাটাতে গত বৃহস্পতিবার ব্যাংকের শীর্ষ নির্বাহীদের সংগঠন অ্যাসোসিয়েশন অব ব্যাংকার্স বাংলাদেশ (এবিবি) ও বাংলাদেশ ফরেন এক্সচেঞ্জ ডিলারস অ্যাসোসিয়েশনের (বাফেদা) নেতাদের সঙ্গে এক সভা করে কেন্দ্রীয় ব্যাংক। সভায় প্রতি ডলারের বিনিময় মূল্য কত হবে, তা নির্ধারণের জন্য ব্যাংকগুলোকে প্রতিদিন প্রস্তাব দিতে বলা হয়।

সেই অনুযায়ী, ব্যাংকগুলো আজ রোববার প্রস্তাব দেয়, রপ্তানি বিল নগদায়নে ডলারের দাম হবে ৮৮ টাকা ৯৫ পয়সা। আর প্রবাসী আয় আনতে ডলারের সর্বোচ্চ দাম ধরা হবে ৮৯‍ টাকা ৭৫ পয়সা। আর আন্তব্যাংকে ডলার কেনাবেচা হবে ৮৯ টাকা ৮০ পয়সায় ও আমদানিকারকদের কাছে বিক্রি করা হবে ৮৯ টাকা ৯৫ পয়সায়।
ব্যাংকগুলোর এ প্রস্তাবের পরিপ্রেক্ষিতে কেন্দ্রীয় ব্যাংক গভর্নর আজ সন্ধ্যায় আন্তব্যাংক কেনাবেচার ক্ষেত্রে ডলারের দাম নির্ধারণ করে দেন ৮৯ টাকা। পাশাপাশি আমদানিকারকদের কাছে বিক্রির ক্ষেত্রে প্রতি ডলারের দাম ৮৯ টাকা ১৫ পয়সা নির্ধারণ করেন।

জানতে চাইলে কেন্দ্রীয় ব্যাংকের মুখপাত্র সিরাজুল ইসলাম প্রথম আলোকে বলেন, নতুন করে আবারও ডলারের দাম নির্ধারণ করা হয়েছে। নতুন এ দাম আগামীকাল সোমবার থেকে কার্যকর হবে। বিশ্ববাজারে পণ্যের মূল্যবৃদ্ধি ও পণ্য পরিবহনে জাহাজভাড়া বৃদ্ধি পাওয়ায় ইতিমধ্যে আমদানি ব্যয় বেড়ে গেছে প্রায় ৪৪ শতাংশ।

রপ্তানি ও প্রবাসী আয় দিয়ে সেই খরচ মেটানো যাচ্ছে না। এতে দেশে ডলারের সংকট দেখা দিয়েছে। সংকট সামাল দিতে রিজার্ভ থেকে প্রতিদিনই ডলার বিক্রি করছে কেন্দ্রীয় ব্যাংক। এতে ব্যাংক ও খোলাবাজারে বেড়ে গেছে ডলারের দাম। এখন কেন্দ্রীয় ব্যাংক হস্তক্ষেপ করে ব্যাংক খাতে ডলারের দাম ধরে রাখার চেষ্টা করছে।

মতামত দিন