জাতীয়

পদবী পরিবর্তন করতে আইন সংশোধনী বিল

উপসচিব পদমর্যাদার ‘সচিব’ পদবী পরিবর্তন করতে বাংলাদেশ পরমাণু শক্তি কমিশন আইন ২০১৭ সংশোধনী বিল সংসদে উত্থাপিত হয়েছে। সংশোধিত বিলে আগের আইনের দু’টি ধারা সংশোধন করে ‘সচিব’ পদবী ‘কার্য নির্বাহক (প্রশাসন)’ ও অর্থ উপদেষ্টার পরিবর্তে ‘কার্য নির্বাহক (অর্থ)’ করা হয়েছে।

সোমবার স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরীর সভাপতিত্বে একাদশ জাতীয় সংসদের ১৮তম (বাজেট) অধিবেশনে ‘বাংলাদেশ পরমাণু শক্তি কমিশন (সংশোধন) আইন ২০২২ বিল’ উত্থাপন করেন বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি মন্ত্রী স্থপতি ইয়াফেস ওসমান। পরে বিলটি ৩০ কার্যদিবসের মধ্যে পরীক্ষা করে সংসদে রিপোর্ট প্রদানের জন্য সংশ্লিষ্ট সংসদীয় কমিটিতে প্রেরণ করা হয়। 

সংশোধিত আইনের বিলে বিদ্যমান আইনের ৯-এর উপধারা (২) এ উল্লেখিত ‘সচিব’ শব্দটির পরিবর্তে ‘কার্য নির্বাহক (প্রশাসন)’ প্রতিস্থাপন এবং বিদ্যমান আইনের ১১ ধারা সংশোধন করে ‘সরকার কমিশনকে সহায়তা প্রদানের জন্য, একজন সার্বক্ষণিক কার্য নির্বাহক (অর্থ) ও একজন কার্য নির্বাহক (প্রশাসন) নিয়োগ করিবে।’ বাক্যটি প্রতিস্থাপন করার প্রস্তাব করা হয়েছে। 

বিলের উদ্দেশ্য ও কারণ সম্বলিত বিবৃতিতে বলা হয়েছে, অধস্তন অফিসসমুহে সহকারি সচিব, উপসচিব, যুগ্মসচিব, অতিরিক্ত সচিব ও সচিব পদনাম সচিবালয়ের বাইরে বিধি বহির্ভূতভাবে ব্যবহার করা হয়। সরকারের সিদ্ধান্ত মোতাবেক পদনামগুলো পরিবর্তন করতে হবে। 

বাংলাদেশ পরমাণু শক্তি কমিশনের সাংগঠনিক কাঠামোতে ‘অর্থ উপদেষ্টা’ ও  ‘সচিব’ পদনাম রয়েছে। জন প্রশাসন মন্ত্রণালয় এ পদগুলিতে উপসচিব পর্যায়ের কর্মকর্তা নিয়োগ প্রদান করে। এখন মন্ত্রপরিষদ বিভাগের নির্দেশনা অনুযায়ী কমিশনের সচিব’ পদনাম সংশোধন করা প্রয়োজন। সেই সাথে ‘অর্থ উপদেষ্টা’ পদ নাম পরিবর্তনের জন্য বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি মন্ত্রণালয় থেকে উদ্যোগ নেওয়া হয়। এ লক্ষ্যে আইনের খসড়া প্রস্তুত করা হয়েছে।

মতামত দিন