জাতীয়

সংসদের মুলতবি হওয়া বৈঠক শুরু

৯ দিন বিরতির পর আজ থেকে শুরু হয়েছে সংসদের মুলতবি হওয়া বৈঠক। মঙ্গলবার (১৪ সেপ্টেম্বর) বেলা ১১টায় স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরীর সভাপতিত্বে সংসদের বৈঠক শুরু হয়।

সংসদে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা উপস্থিত থাকলেও অসুস্থতার কারণে উপস্থিত নেই বিরোধীদলীয় নেতা রওশন এরশাদ। তবে জাতীয় পার্টির কো-চেয়ারম্যান গোলাম মোহাম্মদ কাদের উপস্থিত রয়েছেন।

গতকাল সোমবার (১৩ সেপ্টেম্বর) জাতীয় পার্টির (জাপা) প্রেসিডিয়াম সদস্য ও সংসদের সংরক্ষিত নারী আসনের সদস্য অধ্যাপক মাসুদা এম রশিদ চৌধুরী মারা যাওয়ায় সংসদের শোক প্রস্তাব আনা হয়েছে। এরপর রীতি অনুযায়ী সংসদের অন্যান্য কার্যক্রম স্থগিত করা হবে। তার জীবনীর ওপর আলোচনা হচ্ছে।

এর আগে প্রশ্নোত্তর পর্ব টেবিলে উত্থাপিত হবে। এদিন পানি সম্পদ মন্ত্রণালয়, আইন ও বিচার বিভাগ, লেজিসলেটিভ ও সংসদ বিষয়ক বিভাগ, জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়, মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রণালয় এবং বাংলাদেশ সরকারি কর্মকমিশন সচিবালয়ের প্রশ্নোত্তর রয়েছে।

স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী বিদেশ সফরে ছিলেন। অন্যদিকে ডেপুটি স্পিকার চিকিৎসার জন্য ভারতে আছেন। এজন্য দীর্ঘ এই মুলতবি। অথচ করোনার কারণে সংসদের বৈঠকে যাতে কোনো বিরতি না থাকে এজন্য শুক্রবারও বিকেলে সংসদের বৈঠক চালানো হয়েছিল।

এর আগে, গত ১ সেপ্টেম্বর শুরু হওয়া অধিবেশন চার কার্যদিবস চলার কথা ছিল। কিন্তু বর্তমান সংসদের দুইজন সদস্য মারা যাওয়ায় সংসদের কার্যক্রম দুই কার্যদিবস স্থগিত করে মুলতবি করা হয়।

অধিবেশনের প্রথম দিন প্রয়াত সংসদ সদস্য আলী আশরাফের ওপর আনা শোক প্রস্তাবের আলোচনা শেষে রেওয়াজ অনুযায়ী সংসদের বৈঠক মুলতবি করা হয়। পরদিন (৪ সেপ্টেম্বর) সিরাজগঞ্জের সংসদ সদস্য হাসিবুর রহমান স্বপনের মৃত্যুতে আবারও শোক প্রস্তাব তুলে অধিবেশন মুলতবি করা হয়।

মতামত দিন